উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার পর ভর্তি পরীক্ষার দামামা বেজে ঔঠে । সকলে নেমে পড়ে যুদ্ধে। যারা এই যুদ্ধে জয়ী হয় তারাই হয়ে ওঠে আগামীর নেতৃত্বদানকারী । আর এই যুদ্ধে জয়ী হয়ে কেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়কে আপনার পছন্দের প্রথম দিকে রাখবেন সেটাই আজ বলব ।

**রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়**

১। বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়ের র্যাংকিং এ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় বর্তমানে ৫ম। বুয়েট ছাড়া আর কোন প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় আমাদের আগে নেই ।

২। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের ৩য় বৃহত্তম বিশ্ববিদ্যালয়। তাই ক্যাম্পাস লাইফ বিন্দাস কাটবে ।

৩। দেশের ২য় বৃহত্তম লাইব্রেরিটি আমাদের ।

৪। বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর মধ্যে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সবচেয়ে বেশি ব্যান্ডউইথ কেনে। পুরো ক্যাম্পাসে ফ্রি ওয়াইফাই।

৫। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে মোট ৫৮টি বিভাগ আছে । প্রায় সব বিভাগেরই বিদেশে অনেক ডিমান্ড।

৬। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মত সুন্দর সাজানো ক্যাম্পাস বাংলাদেশে নেই।

৭। গবেষণার অনেক সুযোগ আছে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণাপত্র প্রকাশে দেশে ৪র্থ।

৮। সারা বছর ধরে অনেক কালচারাল প্রোগ্রাম করা হয়। অনেক আনন্দ ফুর্তি হয়।

৯। রাবিতে আছে Rajshahi University Higher Study Club (RUHSC), Rajshahi university Career Club(RUCC), Rajshahi university IT Society (RUIT) নামের অনেক সমৃদ্ধশালী ক্লাব। যেগুলো আমাদের স্কিল ডেভলপমেন্ট এ অনেক সাহায্য করে।

১০। প্যারিস রোড, আম চত্বর, ইবলিশ চত্বর, বদ্ধভুমি, সাবাস বাংলা রাবির প্রধান আকর্ষণ।

১১। বিশ্বের নামকরা সব স্কলারশিপ (ফুলব্রাইট, কমনওয়েলথ, ড্যাড ) প্রতি বছর ই রাবিয়ানরা পায়।

১২। বিসিএস, বিজেএস ছাড়াও বিভিন্ন সরকারি চাকরিতে এবং বেসরকারি চাকরিতে রাবিয়ানরা অনেক এগিয়ে।

১৩। বিভিন্ন ধরনের প্রতিযোগীতায় রাবিয়ানদের সাফল্য ঈর্ষানীয়।

১৪। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস ও ঐতিহ্য অনেক সমৃদ্ধ। যে ২-৩টি বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনের সাথে জড়িত তাদের মধ্যে রাবি অন্যতম।

এত সব কারণে আপনার পছন্দের প্রথম দিকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থাকবে।

যুদ্ধ জয় করে বীরের বেশে আগত আপনার পদাচরনে মুখরিত হোক গোটা ক্যাম্পাস। এই কামনায়,

Share This