অাপনাদের সকলেরই একটা কমন অভিযোগ থাকে তাহলো “পড়লে মনে থাকে না। এতো পড়ি কিন্তু মনে রাখতে পারি না।”হ্যা এটা ঠিক যে পড়া ১০০% মুখস্ত করা ঠিক না।বরং বুঝে পড়তে হয়।তবুও কিছু জিনিস অাপনাদের মনে রাখা লাগবেই।তাই অাজ তোমাদের সামনে অালোচনা করবো এমন কিছু কৌশল যা অাপনাকে পড়া মনে রাখতে সাহায্য করবে।

১।নিচু স্বরে পড়া

গবেষণায় দেখা গেছে, উচ্চস্বরে পড়া অপেক্ষা নিচু স্বরে পড়লে সেটা মনের ভিতর সহজে গেথে যায়।কোনো কিছু সহজে বোঝার জন্য মৌন পাঠই ভালো।তবে ব্যক্তি বিশেষে এটা ভিন্ন রকম হতে পারে।

২।প্রধান টপিকসগুলো চিহ্নিত করা

একটা পাঠের ভিতর সব কিছু সমান গুরুত্বপুর্ণ নয়।কিছু লাইন থাকে তুলনামূলক বেশি গুরুত্বপুর্ণ।সেগুলো অাগে খুজে বের করে চিহ্নিত করতে হবে।তাহলে অাপনার পাঠটা সহজ এবং কম হয়ে যাবে।ফলে মনে ধরে রাখতে পারবে খুব সহজেই।

৩।অনুমান

পাঠের ভিতর একটা লাইনের পর অারেকটা লাইন কি হবে এটা অনুমান করতে পারলে তুমি অল্প পড়েই সহজেই একটা পাঠ মনে রাখতে পারবে।অাপনার কষ্টটাও অনেক কম হবে।

৪।লিখে লিখে পড়া

একবার লেখা ৫বার পড়ার সমান।তাই অাপনাকে অবশ্যই পাঠগুলো লিখতে হবে।পড়ার পাশাপাশি লিখলে সেটা ২গুণ বেশি কাজে দেবে।তোমার মেমরি সহজে এটা ধরতে পারবে।অনেক সময় ছবিও অাঁকতে পারো।

৫।সময় নির্বাচন

সারা দিনরাত পড়লেই সেটা কাজে লাগে না।এর জন্য একটা নির্দিষ্ট সময় নির্বাচন করতে হয়।কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, বিকালের পর আমাদের ব্রেইনের কার্যকারিতা বৃদ্ধি পেতে থাকে। তাই বিকালের পরে অর্থাৎ সন্ধ্যায় বা রাতে পড়া বেশি কার্যকর হয়।তবে এটা ব্যক্তি বিশেষে বিভিন্ন রকম হতে পারে।

৬।অন্যকে শেখানো

অন্যকে শেখানো অাপনার পড়া মনে রাখার জন্য অনেক বড় একটা টেকনিক। অনেকে ভাবে যে কেওকে শেখালো অামার ক্ষতি হবে।কিন্তু এটা ১০০% ভুল।বরং এটা অাপনার জন্যই মঙ্গল।

Share This